মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ০২:৫৯ পূর্বাহ্ন

উ. কোরিয়া-ভিয়েতনাম সফরে পুতিন!

বিশেষ প্রতিনিধি
আপডেট : মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ০২:৫৯ পূর্বাহ্ন

কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই উত্তর কোরিয়া ও ভিয়েতনাম সফর করবেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। সোমবার (১০ জুন) একটি কূটনৈতিক সূত্রের বরাতে রুশ সংবাদমাধ্যম ভেদোমস্তি এই তথ্য জানিয়েছে।

উত্তর কোরিয়ায় নিযুক্ত রুশ রাষ্ট্রদূত আলেক্সান্ডার মাতসেগোরা ভেদোমস্তিকে নিশ্চিত করেছেন যে, পুতিন পিয়ংইয়ং সফর করবেন ও এই বিষয়ে প্রস্তুতি চলছে। তবে এই সফরের উদ্দেশ্য ও সঠিক দিন-তারিখ জানাননি আলেকজান্ডার।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক রুশ কূটনীতিক জানিয়েছেন, ভিয়েতনামে যাওয়ার আগে পুতিন উত্তর কোরিয়ায় যাবেন।

এদিকে, সোমবার (১০ জুন) সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার সময় ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ পুতিনের এই সফরের বিষয়ে মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানান। তিনি শুধু জানান, যখন সময় আসবে, তখন আমরা বিস্তারিত সব জানাবো। গত মাসে রাশিয়ার উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী আন্দ্রেই রুদেনকো সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, উত্তর কোরিয়া সফরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন পুতিন।

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ শুরু হওয়া পর থেকে রাশিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক আরও ঘনিষ্ট করার চেষ্টা করতে থাকেন উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উন। গত বছরের সেপ্টেম্বরে পুতিনের সঙ্গে বৈঠকের জন্য রাশিয়া সফর করেছিলেন কিম। উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ এই নেতার জন্য সেটি ছিল একটি বিরল বিদেশ ভ্রমণ।

ওই সফরেই মূলত পুতিনকে উত্তর কোরিয়া সফরের আমন্ত্রণ জানান কিম জং উন। এমন আমন্ত্রণের জন্য তাকে ধন্যবাদও জানিয়েছিলেন রুশ প্রেসিডেন্ট। চলতি বছরের শুরুর দিকে ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ জানিয়েছিলেন, পুতিন শিগগির পিইয়ংইয়ং সফরের ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন। তবে কখন এই সফর হবে তা এখনো নির্ধারণ হয়নি।

সর্বশেষ ২০০০ সালে কিম জং উনের বাবা কিম জং ইলের সঙ্গে দেখা করতে সর্বশেষ উত্তর কোরিয়া সফর করেছিলেন ‍পুতিন। গত বছর আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির পর থেকে চীন, সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও হাতে গোনা কয়েকটি দেশ ছাড়া অন্য কোনো দেশে রাষ্ট্রীয় সফরে যাননি পুতিন।

এদিকে, ভিয়েতনামি সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, চলতি বছরেই পুতিনকে ভিয়েতনাম সফরের আমন্ত্রণ জানান দেশটির কমিউনিস্ট পার্টির সাধারণ সম্পাদক নগুয়েন ফু ট্রং। সবশেষ ২০১৭ সালে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার এ দেশে গিয়েছিলেন পুতিন।

মে মাসের গোড়ার দিকে পঞ্চম মেয়াদে প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে পুতিন চীন, বেলারুশ ও উজবেকিস্তান সফর করেছেন।